লামায় গাড়ি তল্লাসী করে ৫১ রোহিঙ্গাকে আটক

0
240

হিল ভয়েস, ২৬ এপ্রিল ২০২৩, বান্দরবান: বান্দরবান জেলার লামা উপজেলায় পুলিশ ও সেনাবাহিনী যৌথ তল্লাশি চালিয়ে ৫১ জন রোহিঙ্গা নাগরিককে আটকের খবর পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে ২১ জনকে বাস ও ৩০ জনকে জিপ থেকে আটক করা হয়েছে। কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এই বাসিন্দারা বান্দরবানের দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় শ্রমিকের কাজ করতেন বলে জানা যায়।

আজ বুধবার (২৬ এপ্রিল) দুপুরে উপজলার লামা-ফাঁসিয়াখালী সড়কের ইয়াংছা চেক পোস্ট এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা সবাই মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের  বাসিন্দা ছিলেন। বর্তমানে তারা কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আশ্রিত শরণার্থী।

পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে, আলীকদম থেকে যাত্রীবাহী একটি বাসে করে ২১ রোহিঙ্গা যাচ্ছিলেন চকরিয়ার দিকে। অন্যদিকে চকরিয়া থেকে ৩০ জন রোহিঙ্গা জিপে করে যাচ্ছিলেন আলীকদম। পথে ইয়াংছা চেকপোস্টে পুলিশ ইনচার্জ আবুল হাসেম মির্জার নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর সদস্যরা গাড়ি দুটিতে তল্লাশি চালান। একপর্যায়ে দুই গাড়িতে থাকা ৫১ জন বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র বা বৈধ কোনো কাগজপত্র দেখাতে না পারলে তাদের আটক করা হয়।

আটক মো. করিম, রহমতুল্লাহসহ কয়েকজন জানান, কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতুপালং রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প থেকে বের হয়ে বান্দরবানের বিভিন্ন ব্যক্তি মালিকানাধীন বাগানে শ্রমিকের কাজ করতেন তারা।

আরো জানা যায়, কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে শত শত রোহিঙ্গা পালিয়ে এসে বান্দরবানের লামা, আলীকদম, নাইক্ষ্যংছড়ি সহ ৭টি উপজেলায় চুরি, ডাকাতি, খুন, চাঁদাবাজির ঘটনার সাথে জড়িয়ে পড়ছে, আবার অনেকে জেলার বিভিন্ন ব্যাক্তি মালিকানাধীন বাগান ও নির্মান কাজে শ্রমিক হিসাবে নিয়োজিত রয়েছে।

উল্লেখ্য যে, এযাবৎ বান্দরবানসহ তিন পার্বত্য জেলায় প্রায় ৫০,০০০ (পঞ্চাশ হাজার) রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ করেছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়।

আরো পড়ুন

বান্দরবানে অনুপ্রবেশকালে সেনাবাহিনীর চেকপোস্টে ৪৫ জন রোহিঙ্গা আটক