রুমায় ৫ দিন ব্যাপী সেনা অভিযান, ৪ জনকে মারধর, একটি নতুন ক্যাম্প স্থাপন

0
2047
ছবি: প্রতীকী

হিল ভয়েস, ১৬ অক্টোবর ২০২০, বান্দরবান: রুমা গ্যারিসনের সেনাবাহিনীর উদ্যোগে বান্দরবান জেলার রুমা উপজেলার ৪নং রেমাক্রী প্রাংসা ইউনিয়নের মেনরন পাড়া, লেনপুং ম্রো পাড়া, কিস্ত পাড়া (ত্রিপুরা পাড়া), বিশাই পাড়া (ত্রিপুরা পাড়া), মুংগহা পাড়া, রামদু পাড়া, জিগন পাড়া, এডেন পাড়া ও কালা পাড়া ইত্যাদি ৯টি গ্রামে ৫ দিন ব্যাপী এক সামরিক অভিযান চালানো হয় বলে জানা গেছে।

গত ১০ অক্টোবর ২০২০ তারিখ থেকে এই অভিযান শুরু হয় এবং গতকাল ১৫ অক্টোবর ২০২০ সেনা সদস্যরা ক্যাম্পে ফিরে যায় বলে জানা যায়। এতে এলাকার জনগণের মধ্যে ব্যাপক আতঙ্ক এবং স্থানীয় মানুষের চলাচলে ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে যে, রুমা উপজেলার ৩নং গালেংগ্যা ইউনিয়ন ও ২নং রুমা ইউনিয়নে শামাখাল ও নাইটং মারমা পাড়াসমূহে অভিযান চলাকালে সেনা সদস্যরা শামাখাল মারমা পাড়ায় ৪ জন জুম্ম গ্রামবাসীকে জিজ্ঞাসাবাদ ও মারধর করেছে।

অভিযান শেষ করে সেনা সদস্যরা ১৫ অক্টোবর ব্যারাকে ফিরে গেলেও কিস্ত পাড়া নামক স্থানে একটি নতুন ক্যাম্প তৈরী করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

গালেঙ্গা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের কিস্ত পাড়ার লগনা ত্রিপুরার ছেলে লরেন্স ত্রিপুরার জায়গা দখল করে উক্ত ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। ক্যাম্প তৈরীর জন্য লগনা ত্রিপুরা সেগুন বাগানের গাছ কেটে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এর আগে গত ১০-১২ সেপ্টেম্বর ২০২০ টানা তিন দিন বিজিবি ও সেনাবাহিনী মিলিতভাবে বান্দরবান জেলার রুমা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে চিরুণী অভিযান চালিয়েছিল। এসময় তারা রুমার কালা পাড়া, অর্জুন পাড়া, এডেনপাড়া, রামদুপাড়া, আদিগা পাড়া, বিশাই পাড়া, লহপাড়া, কিস্ত পাড়া, চুংটাং পাড়া ও ঝিগন পাড়ায় এই অভিযান চালায়।