চট্টগ্রামে আদিবাসী শিক্ষার্থী পরিবারের নবীনবরণ ও ২য় কাউন্সিল

0
501

হিল ভয়েস, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, চট্টগ্রাম: গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ চট্টগ্রামে আর্বান সেন্টার মিলনায়তনে ‘এসো নবীন শেকড়ের টানে, মিলিত হই মোরা ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে’ স্লোাগানকে সামনে রেখে পোর্ট সিটি আদিবাসী শিক্ষার্থী পরিবারের নবীনবরণ ও ২য় কাউন্সিল সম্পন্ন হয়।

পোর্টসিটি আদিবাসী শিক্ষার্থী পরিবার এর সাংগঠনিক সম্পাদক জুডিশিয়াল ত্রিপুরার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পোর্ট সিটি আদিবাসী শিক্ষার্থী পরিবারের বিদায়ী কমিটির সভাপতি প্রমিত চাকমা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের (পিসিপি) চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সহ-সভাপতি সৌরভ চাকমা। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পিসিপি’র চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক অম্লান চাকমা, পোর্ট সিটি আদিবাসী শিক্ষার্থী পরিবারের সহ-সভাপতি মংচে প্রু মারমা, প্রাক্তন শিক্ষাথী বনজ্যোতি ত্রিপুরা প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে ওই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী প্রয়াত নিশান চাকমার স্মরণে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ওই প্রতষ্ঠানের ৩১তম ব্যাচের সিএসই ডিপার্টমেন্টের শিক্ষার্থী দৃষ্টি চাকমা। অনুষ্ঠানের শুরুতে নবীন শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।

বক্তারা বলেন, পোর্টসিটি আদিবাসী শিক্ষার্থী পরিবার একটি সুন্দর ও সুশৃঙ্খলাবদ্ধ একটি পরিবার। এই পরিবারের প্রত্যেক সদস্যরা যেন সেই পারিবারিক বন্ধনে গভীর থেকে গভীরে আবদ্ধ থাকে। সুখে-অসুখে একে অপরের পাশে যেন ছায়া হয়ে দাঁড়ায়।

বক্তারা আরো বলেন, শিক্ষার মূল লক্ষ্য হলো জ্ঞান অর্জন করা। এই জ্ঞান অর্জনের জন্য শুধুমাত্র একাডেমিক বই নিয়ে পড়ে থাকলে হবে না, তার পাশাপাশি সামাজিক, রাজনৈতিক জ্ঞানও অর্জন করা আবশ্যক। যে শিক্ষা জাতিকে নিয়ে ভাবতে শেখায়, যে শিক্ষা সমাজকে নিয়ে ভাবতে শেখায় সে শিক্ষাই আমাদের গ্রহণ করতে হবে।
এছাড়াও পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের দাবি দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৫% আদিবাসী কোটা চালু করা এবং পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের বৃহত্তর আন্দোলনে সামিল হওয়ার আহবান জানানো হয়।

সবশেষে সুকর্না চাকমাকে সভাপতি, জুডিশিয়াল ত্রিপুরাকে সাধারণ সম্পাদক এবং আশুতোষ তঞ্চঙ্গ্যাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৩৭ সদস্য বিশিষ্ট পোর্টসিটি আদিবাসী শিক্ষার্থী পরিবার কমিটি ঘোষণা করা হয়।