রাজস্থলীতে সেনাবাহিনী ও মগ পার্টি সন্ত্রাসীদের মারধরের শিকার ২ জুম্ম গ্রামবাসী

0
601
Photo: Symbolic

হিল ভয়েস, ১১ ডিসেম্বর ২০২২, রাঙ্গামাটি: বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও সেনামদদপুষ্ট মগ পার্টি সন্ত্রাসীদের কর্তৃক রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলাধীন রাজস্থলী উপজেলার গাইন্দ্যা ইউনিয়নে দুই নিরীহ জুম্ম গ্রামবাসী মারধরের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মারধরের শিকার দুই গ্রামবাসী হলেন (১) অংহ্লাচিং মারমা (২৮), পীং-মংউচিং মারমা, গ্রাম-গাইন্দ্যা পাড়া, ৯নং ওয়ার্ড, গাইন্দ্যা ইউনিয়ন ও (২) বাসিং মারমা ওরফে বালা, পীং-অংহলাচিং মারমা, গ্রাম-গাইন্দ্যা পাড়া, ৯নং ওয়ার্ড, গাইন্দ্যা ইউনিয়ন। অংহ্লাচিং মারমা পেশায় একজন দিনমজুর এবং বাসিং মারমা একজন ছাত্র বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ ১১ ডিসেম্বর ২০২২ সকাল আনুমানিক ৭:০০ টার দিকে রাজস্থলী উপজেলার বাঙ্গালহালিয়া সেনাক্যাম্পের একদল সেনা সদস্য এবং সবুজ মারমা নেতৃত্বাধীন মগ পার্টি সন্ত্রাসীদের একটি দল গাইন্দ্যা ইউনিয়নে যৌথ অভিযানে যায়। যৌথ অভিযানের এক পর্যায়ে সেনাবাহিনী ও মগ পার্টি সন্ত্রাসী দলের সদস্যরা গাইন্দ্যা ইউনিয়নের ক্রংসাংগইং পাড়া বৌদ্ধ বিহারেও যায়। এসময় সেনা সদস্য ও মগ পার্টি সন্ত্রাসীরা সেখানে বিহারের কাজে যুক্ত থাকা অংহ্লাচিং মারমা ও বাসিং মারমাকে বেদম মারধর করে। মারধর করার সময় সেনা ও মগ পার্টি সদস্যরা ‘এখানে সন্ত্রাসীরা কোথায় থাকে’ বলে জিজ্ঞাসা করে। উক্ত দুই ব্যক্তিকে মারধর করে জখম অবস্থায় ফেলে রেখে সেনা ও মগ পার্টি সন্ত্রাসীরা সেখান থেকে চলে যায়।

জানা গেছে, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ মেম্বার থুইচিংমং মারমা বৌদ্ধ বিহারের কাজের জন্য অংহ্লাচিং মারমা ও বাসিং মারমাকে সেখানে ডেকে নিয়ে আনেন।