হিল ভয়েস টিভির সাপ্তাহিক সংবাদ বুলেটিন

0
330

৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, শনিবার, ব্যুরো অফিস: গত সপ্তাহের সংঘটিত ঘটনার সংবাদ হলো-
■ চট্টগ্রামে এক সমাবেশে পাহাড়ি-বাঙালি সবাই মিলে পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নে সরকারকে বাধ্য করা হবে বলে হুশিয়ারি উচ্চারন করা হয়।
■ রুমায় বমপার্টি খ্যাত কেএনএফের হুমকির ফলে ৪ গ্রামের বম ও মারমা পাড়াবাসীদের উচ্ছেদ।
■ বমপার্টির হুমকি ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে রুমাবাসীদের এক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত।
■ দীঘিনালায় সেনাবাহিনীর অনুমতি ছাড়া ঘরবাড়ি নির্মাণে রয়েছে বিধিনিষেধ।
■ সেন্সর বোর্ডে প্রায় আট বছর ধরে আটকে আছে চাকমা ভাষায় নির্মিত সিনেমা মর থেংগারি।

এই ছিল গত সপ্তাহের সংক্ষিপ্ত সংবাদ। এবার বিস্তারিত।
চট্টগ্রাম থেকে সংবাদদাতা জানান যে, গত ১লা ফেব্রুয়ারি বিকাল ৩ টায় চট্টগ্রামে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়ন আন্দোলন’-এর উদ্যোগে এক সংহতি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাশেদ খান মেনন বলেন, পাহাড়ে অশান্তি হলে তা সারাদেশের অশান্তি ডেকে আনে। তাই পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়রনর মাধ্যমে পাহাড়ে শান্তি ফিরিয়ে আনতে হবে। আর পাহাড়ি-বাঙালি সবাই মিলে পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নে সরকারকে বাধ্য করা হবে বলে তিনি হুশিয়ারি উচ্চারন করেন।

এর আগে গত ২৭ জানুয়ারি পাহাড়ি শ্রমিকদের অধিকার রক্ষায় প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন পাহাড়ি শ্রমিক কল্যাণ ফোরামের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীকে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়নে পাহাড়ি-বাঙালি, আদিবাসী ও ধর্মীয় সংখ্যালঘুসহ সর্বস্তরের জনগণকে এগিয়ে আসার আহবান জানান বক্তারা।

বান্দরবানের প্রতিনিধি জানান, গত ২৯ জানুয়ারি ইসলামী জঙ্গীগোষ্ঠী প্রশ্রয়প্রদানকারী বমপার্টি খ্যাত কেএনএফের হুমকির ফলে রুমা উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়নের বাসতালাই, আর্থা পাড়া, হ্যাপি হিল ও মুয়ালপি পাড়া থেকে বম ও মারমা গ্রামবাসীদের উচ্ছেদ হয়ে পড়ে। তাদের মধ্যে উপজেলা সদরে অবস্থিত মারমা ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের ভবনে প্রায় ৫০ জন মারমা গ্রামবাসীকে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মিয়ানমারের মিজো, কুকি ও চিন জনগোষ্ঠীর সহানুভূতি ও সমর্থন লাভের উদ্দেশ্যে বম গ্রামবাসীদেরকে মিজোরামে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় গ্রহণে বাধ্য করতে কেএনএফ এধরনের উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র করছে।

আরো জানা যায় যে, রুমায় সেনাবাহিনীর গুলিতে কেএনএফ-এর এক সদস্য নিহত হয়েছে। সেনাবাহিনী ও পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে তার অভিভাবকের নিকট হস্তান্তর করেছে বলে জানা গেছে।

গত ২ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০.০০ টায় রুমা উপজেলা সদরে শান্তিকামী রুমাবাসীর ব্যানারে কেএনএফের হুমকি ও নানা ধরনের হয়রানির বিরুদ্ধে এক সমাবেশের আয়োজন করা হয়। এসময় সমাবেশে বমপার্টিকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা বন্ধ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য আহবান জানানো হয়।

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি জানান, দীঘিনালা উপজেলায় বেশ কিছু এলাকায় বসবাসকারী জুম্মরা সেনাবাহিনীর অনুমতি ছাড়া ঘরবাড়ি নির্মাণ-সামগ্রী ক্রয় ও বহন করতে পারেন না। বিগত ২০১৯ সাল থেকে সেনাবাহিনী এই নিষেধাজ্ঞা জারি করে। গত ৩ ফেব্রুয়ারি নতুন বাড়ি নির্মাণের জন্য ৬০ ফুট কাঠ আনতে বাবুছড়া সাবজোনে অনুমতি চেয়ে সন্তোষ চাকমা নামে মেরুং ইউনিয়নের ভৈরফা এলাকার এক বাসিন্দা এক আবেদন করেন। সেনাবাহিনীর এই নিষেধাজ্ঞার ফলে সেখানে বসবাসরত পাহাড়িরা নানা হয়রানির শিকার হচ্ছেন।

সেন্সর বোর্ডে প্রায় আট বছর ধরে আটকে আছে চাকমা ভাষায় নির্মিত বাংলাদেশের প্রথম সিনেমা মর থেংগারি। ২ ফেব্রুয়ারি তরুণ নির্মাতা অং রাখাইনের মর থেংগারি সিনেমা নিয়েও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সোচ্চার হয়েছেন অনেকে।