রুমায় পলিপাড়া গ্রাম উচ্ছেদের চেষ্টার প্রতিবাদে গ্রামবাসীর মানববন্ধন, স্মারকলিপি

0
498

হিল ভয়েস, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, বান্দরবান: গতকাল (১৪ ফেব্রুয়ারি) বান্দরবান জেলার রুমা উপজেলা সদরে ভূমিদস্যু বাথোয়াইঅং মারমা গং কর্তৃক পলিপাড়া গ্রাম উচ্ছেদের চেষ্টার অভিযোগ তুলে পলিপাড়া গ্রামবাসীদের উদ্যোগে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং মানববন্ধন শেষে প্রধানমন্ত্রী, উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তাসহ বিভিন্ন কর্তৃপক্ষের বরাবরে এ ব্যাপারে আবেদনপত্রও প্রদান করা হয়েছে।

সকালের দিকে রুমা উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের সম্মুখে গ্রামবাসীদের পক্ষ থেকে প্রায় অর্ধশতাধিক নারী ও পুরুষ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন। প্রায় ঘন্টাখানেক স্থায়ী মানববন্ধন অনুষ্ঠানের পর গ্রামবাসীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বরাবরে এ ব্যাপারে একটি আবেদনপত্র পেশ করেন।

এছাড়াও গ্রামবাসীরা উক্ত আবেদনপত্র পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, বোমাং সার্কেলের চীফ ও বান্দরবান জেলা প্রশাসকের বরাবরে প্রেরণ করেন বলে আয়োজকরা জানান।

আবেদনপত্রে বাথোয়াইঅং মারমা (৬৭), গ্রাম-বগামুখ পাড়া এবং তার সঙ্গী থুইনুচিং (৫৭), গ্রাম-উজানীপাড়া নদীর পাড়, ক্রা থুই চিং মারমা(৪৫), গ্রাম-মনজয় পাড়া, রীনা চাকমা (৩৫), গ্রাম-উজানী পাড়া ও বীনা চাকমা (৩০), গ্রাম-উজানী পাড়া-কে ভূমিদস্যু হিসেবে উল্লেখ করে তারা গ্রামবাসীদের উচ্ছেদের চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ করা হয়।

গ্রামবাসীদের পক্ষ থেকে উথোয়াই মং মারমা স্বাক্ষরিত আবেদনপত্রে বলা হয়, ‘দ্য চিটাগং হিল ট্র্যাক্টস রেগুলেশন ১৯০০ এর আওতাধীন হেডম্যানশীন চালু হওয়ার পূর্ব থেকে পলিপাড়া গ্রামের প্রতিষ্ঠা হয়। প্রায় ২০০ বছর পূর্বে অত্র মৌজার প্রথম হেডম্যান প্রয়াত মংসাউ হেডম্যান উক্ত গ্রামের বাসিন্দা। স্মরণাতীত কাল থেকে বংশ পরম্পরায় এই গ্রামের মানুষ বসবাস করিয়া আসিতেছে।’

আবেদনপত্রে আরও উল্লেখ করা হয়, ‘উপরোক্ত ভূমিদস্যু/প্রতিপক্ষগণ স্মরণাতীত কাল থেকে স্থিত গ্রামের জমিকে নিজেদের নামীয় ২৯নং হোল্ডিং এর জমি দাবি করিয়া জোরপূর্বক গ্রাম উচ্ছেদ ও বেদখলের অপচেষ্টা করিয়া আসিতেছে।’

জানা গেছে, ইতিপূর্বে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে এব্যাপারে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত প্রবীণ ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ পলিপাড়া গ্রামটি প্রতিপক্ষের দাবিকৃত ২৯নং হোল্ডিং এর জমি নয় বলে মতামত প্রদান করেন।

তারপরও বাথোয়াইঅং মারমা ও তার সঙ্গীরা গত ৩১ জানুয়ারি ২০২৪ গ্রামবাসীদের মধ্যে ১২ জনের বিরুদ্ধে উকিল নোটিশ পাঠান।

গ্রামবাসীরা তাদের আবেদনপত্রে আরও বলেন, ‘উক্ত গ্রামকে কেন্দ্র করিয়া গ্রামবাসীদের জীবন-জীবিকা, বাসস্থান ও সন্তানের শিক্ষা গ্রহণের উপায়-অবলম্বন। এহেন পরিস্থিতিতে পলিপাড়াবাসী নিতান্ত নিরুপায়। গ্রামছাড়া হবার ভয়ে ভীতসন্ত্রস্ত।’

আবেদনে গ্রামবাসীদের গ্রাম থেকে উচ্ছেদের অপচেষ্টা বন্ধ করার আবেদন জানানো হয়েছে।