রাঙ্গামাটির জীবতলীতে সেনাবাহিনীর মারধরের শিকার এক জুম্ম ও এক বাঙালি

0
653
ছবি: প্রতীকী

হিল ভয়েস, ২৬ মে ২০২১, রাঙ্গামাটি: রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলাধীন রাঙ্গামাটি সদর উপজেলার জীবতলী ইউনিয়নে সেনাবাহিনী কর্তৃক এক নিরীহ জুম্ম ও এক বাঙালি মারধরের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মারধরের শিকার দুই ব্যক্তি হলেন- (১) সুমন চাকমা (৪০), পীং-চিকন মরত চাকমা, ঠিকানা-রেংক্ষ্যং বাজার, জীবতলী ইউনিয়ন ও (২) মো: বাদশা মিয়া (৪৩), পীং-লিয়াকত আলী, ঠিকানা-ঐ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ মে ২০২১ বেলা ২:০০ টার দিকে কাপ্তাই সেনা জোনের ২৩ ই বেঙ্গল এর ২০-২৫ জনের একটি সেনাদল জীবতলী ইউনিয়নের রেংক্ষ্যং বাজারে যায়। এরপর সেনা সদস্যরা দোকানদারদের বলতে থাকে, ‘আমরা জেনেছি সন্ত্রাসী এসেছে’ এবং সন্ত্রাসীরা কোথায় তা জানতে চায়।

এসময় সুমন চাকমা ও মো: বাদশা মিয়া রেংক্ষ্যং বাজারে কোনো সন্ত্রাসী দেখা যাইনি বলে জানান। আর এর পরপরই সেনা সদস্যরা সুমন চাকমা ও মো: বাদশা মিয়ার উপর চড়াও হয় এবং তাদের বেদম মারধর করে।

জানা গেছে, এসময় সেনা সদস্যরা মো: বাদশা মিয়া জেএসএস’এর সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখে এবং জেএসএসকে বিভিন্ন ধরনের সাহায্য করে-এমন অভিযোগ তুলে মো: বাদশা মিয়াকে বেশি মারধর করে।

এদিকে, ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক গ্রামবাসী বলেন, তাদের (সেনাবাহিনী) আশ্রয়ে-প্রশ্রয়ে দিনে-রাতে তাদের নাকের ডগায় সংস্কারপন্থী ও ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক) সন্ত্রাসীরা সশস্ত্রভাবে অবস্থান ও বিচরণ করে থাকে। কিন্তু তাদের দেখেও না দেখার ভান করে থাকে। তাদের খোঁজ করা তো দূরের কথা।

উল্লেখ্য, কাপ্তাই সেনা জোন, জীবতলী সেনা ক্যাম্প ও কাপ্তাই নেভী ক্যাম্পের অনতিদূরেই জীবতলীর চেয়ারম্যান পাড়ায় অবস্থান করে সংস্কারপন্থী ও ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক) সন্ত্রাসীদের একটি দল। সেনাবাহিনীই বছর খানেক আগে বিশেষ স্কর্ট দিয়ে সুবলং থেকে নিয়ে আসে এইসব সন্ত্রাসীদের এমন অভিযোগ জনগণের। জীবতলীতে আসার পর থেকেই সেনাবাহিনীর ছত্রছায়ায় সংস্কারপন্থী ও ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক) সন্ত্রাসীরা এই পর্যন্ত এই এলাকায় একাধিক জুম্মকে হত্যা, অনেক গ্রামবাসীকে মারধর এবং অনেকের কাছ থেকে জোরপূর্বক অর্থ আদায় করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here