মহালছড়ির মাইসছড়িতে সেটলার বাঙালি কর্তৃক জুম্মদের ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ

0
840

হিল ভয়েস, ১৬ মার্চ ২০২২, খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি উপজেলার মাইসছড়ি ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ডিপ্পোছড়ি নামক স্থানে গতকাল মঙ্গলবার (১৫ মার্চ ২০২২) রাতে সেটলার বাঙালি কর্তৃক জুম্মদের ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে অন্তত ৯টি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

ভুক্তভোগী ব্যক্তিরা হলেন- ধনঞ্জয় চাকমা, পিতা- মৃত ইন্দ্র সেন চাকমা, যুদ্ধ মোহন চাকমা, পিতা- মৃত বাত্যে চাকমা, স্মৃতিময় চাকমা, পিতা- রামণী চাকমা, প্রেম ময় ত্রিপুর, ললাল চাকমা, পিতা- মৃত পদ্ম লোচন চাকমা, শান্তি লাল চাকমা, পিতা- মৃত পদ্ম লোচন চাকমা, লাউচাঁন চাকমা, পিতা- মৃত পূর্ণ চাকমা, মিন্টু চাকমা, পিতা- কালো বরণ চাকমা ও সাধন ভূষণ চাকমা, পিতা- ইন্দ্র লাল চাকমা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল রাত আনুমানিক ১০টার সময় জয়সেন পাড়ার মো. নাজিম, মো. বেলাল ও মো. নজরুলের নেতৃত্বে একদল সেটলার বাঙালি ডিপ্পোছড়িতে গিয়ে পাহাড়িদের নতুন নির্মাণ করা ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে। এ সময় সেটলারদের সহযোগিতা করার উদ্দেশ্যে একদল সেনা সদস্য আশে-পাশে গিয়ে অবস্থান নেয় বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন। ফলে এ সময় পাহাড়িরা ভয়ে সবাই পালিয়ে যায়। সেটলারদের দেয়া আগুনে অন্তত ৯টি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

স্থানীয় সূত্রে আরো জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে সেটলার বাঙালিরা উক্ত জায়গাটি বেদখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছে। এর আগে কয়েকবার তারা জায়গাটি বেদখলে চেষ্টা চালালেও পাহাড়িদের প্রতিরোধের কারণে তারা সেটা করতে পারেনি। জায়গাটি রক্ষার্থে পরে পাহাড়িরা সেখানে ঘরবাড়ি নির্মাণ করে। এই জায়গাটি বেদখল করতেই গতকাল রাতে সেটলাররা সেখানে গিয়ে পাহাড়িদের নির্মিত ঘরবাড়িতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে বলে তারা অভিযোগ করেছেন।