মহালছড়িতে বাঙালি সেটেলারদের হামলায় ৩৭ বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট, ২ জুম্ম আহত!

0
908

হিল ভয়েস, ৫ জুলাই ২০২২, খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলাধীন মহালছড়ি উপজেলার মাইসছড়ি ইউনিয়নের জয়সেন পাড়া এলাকায় মুসলিম বাঙালি সেটেলারদের কর্তৃক হামলায় ৩৭টি আদিবাসী জুম্মর বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও ভাঙচুর চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলাকারীদের প্রতিরোধ করতে গিয়ে অন্তত দুই জুম্ম আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, জুম্মদের ভূমিগুলো বেদখলের উদ্দেশ্যে কোনো প্রকার উস্কানি ছাড়াই বাঙালি সেটেলাররা জুম্মদের উপর এই হামলা চালায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ (৫ জুলাই ২০২২) সকালের দিকে মহালছড়ির মাইসছড়ি ইউনিয়নের জয়সেন পাড়া এলাকায় পুনর্বাসিত মুসলিম বাঙালি সেটেলারদের প্রায় ২০০ জনের একটি দল ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে পাশ্ববর্তী জুম্মদের বাড়িঘরে এই হামলা চালায়। হামলায় অন্তত ৩৭টি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও ভাঙচুর চালানো হয়। হামলাকারীরা অগ্নিসংযোগের পূর্বে জুম্মদের বাড়ির হাড়ি-পাতিল, কাপড়চোপরসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র লুটপাট করে।

জুম্ম গ্রামবাসীরা হামলাকারীদের প্রতিরোধ করতে চাইলে জুম্ম ও হামলাকারীদের মধ্যে কয়েক ঘন্টাব্যাপী প্রায় দুপুর পর্যন্ত ধাওয়া ও পাল্টা ধাওয়া চলে। এতে প্রাথমিকভাবে দুই জুম্ম আহত হয় বলে জানা যায়। দুপুরে এক পর্যায়ে হামলাকারীরা ঘটনাস্থল ছেড়ে চলে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বিবরণ অনুযায়ী, এই সেটেলারদের এই হামলায় নেতৃত্ব দেয় মো. আজিজ মেম্বার, মো: জয়দার, মো: শহীদুল, মো: জাহাঙ্গীর, মো: ইউনুস, মো: লিটন, মো: জাহেদুল প্রমুখ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন গ্রামবাসীর অভিযোগ, ঘটনার সময় পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলের পাশে উপস্থিত থাকলেও হামলাকারী সেটলারদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।

স্থানীয় জুম্মদের অভিযোগ, জুম্মদের উক্ত ভূমি বেদখলের জন্য বাঙালি সেটেলাররা দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা চালিয়ে আসছে। উক্ত এলাকায় জুম্মদের জুমভূমি ও বাগান-বাগিচা রয়েছে বলে জানা গেছে।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মহালছড়ির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ঘটনাস্থলে গেছেন বলে জানা গেছে। তবে এখনো পর্যন্ত বিস্তারিত জানা যায়নি।