বিভিন্ন স্থানে সংখ্যালঘু শিক্ষকদের নির্যাতন ও অপমানের প্রতিবাদ জানিয়েছে শিক্ষক ঐক্য পরিষদ

0
518

হিল ভয়েস, ২৯ জুন ২০২২, ঢাকা: দেশের বিভিন্ন স্থানে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যালঘু শিক্ষকদের একের পর এক নির্যাতন ও অপমানের তীব্র নিন্দা ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার জন্য জোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষক ঐক্য পরিষদ।

গত ২৭ জুন ২০২২ বাংলাদেশ শিক্ষক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. অরুণ কুমার গোস্বামী ও সদস্য সচিব রঞ্জিত কুমার নাথ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনের পক্ষ থেকে এই নিন্দা ও দাবি জানানো হয়। এছাড়া একই দিন ঢাকার শাহবাগের জাতীয় যাদুঘর চত্বরে বাংলাদেশ শিক্ষক ঐক্য পরিষদ সংখ্যালঘু শিক্ষকদের বিরুদ্ধে নির্যাতন/নিপীড়নের বিচার বিভাগীয় তদন্তপূর্বক দায়ী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে এক নাগরিক সমাবেশ ও মানববন্ধনেরও আয়োজন করে।

শিক্ষক ঐক্য পরিষদের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘নড়াইলের মির্জাপুরে ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে ধর্ম অবমাননার মিথ্যা অপবাদ দিয়ে জুতার মালা দিয়ে চরমভাবে অপমান করা হয়েছে। ওই একই কলেজের অপর দুইজন শিক্ষক প্রশান্ত কুমার রায় এবং অজিত কুমার বিশ্বাসকে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে মারধর করা ও তাদের মটর সাইকেল পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সঞ্জয় সরকার ও উন্মেষ রায়কে কোনঠাসা করে মানসিক দিক দিয়ে হেয় প্রতিপন্ন করা হয়েছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমিরিটাস অধ্যাপক অরুণ কুমার বিশ্বাসের বাড়ির জমি দখল করে নেয়া হয়েছে। বাংলাদেশ শিক্ষক ঐক্য পরিষদ এসব ঘটনার তীব্র ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে এবং ঘটনাগুলোর সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবি জানাচ্ছে।’

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, ‘শুধুমাত্র ধর্মীয়-জাতিগত সংখ্যালঘু হবার কারণে মানুষ গড়ার কারিগর শিক্ষকদের উপর এধরনের ন্যক্কারজনক হামলা প্রকৃতপক্ষে শিক্ষানুরাগী বাংলাদেশ রাষ্ট্রের উপর তথা মানব সভ্যতার উপর আঘাত। যারা শিক্ষকদের আঘাত হানছে, বিশেষত জনপ্রতিনিধি, পুলিশ ও অসংখ্য মানুষের সামনে একজন শিক্ষকের গলায় জুতার মালা পড়ানো দ্বারা সমগ্র বাংলাদেশের শিক্ষকদের অপমান হয়েছে।’

বাংলাদেশ শিক্ষক ঐক্য পরিষদ এসব ঘটনার তীব্র নিন্দা ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার জন্য জোর দাবি জানিয়েছে।