বান্দরবানে লামায় এক ম্রো তরুণী ধর্ষণের শিকার, থানায় মামলা দায়ের

0
813
ছবি : প্রতিকী

হিল ভয়েস, ১৩ মে ২০২১, বান্দরবান: বান্দরবানে লামা উপজেলার রূপসীপাড়া ইউনিয়নে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক ম্রো তরুণীকে র্ধষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা ওই ম্রো তরুণী র্বতমানে লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, লামা উপজেলার একটি খামারে ওই তরুণীর বসবাস। খামারের পাশে গাজীপুরের বাসিন্দা মাহবুবুর রহমানের মাছের খামার ও তামাকের ক্ষেত আছে। পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আসামি মাহবুবুর ওই তরুণীর সঙ্গে অবৈধ সর্ম্পক গড়ে তোলেন । বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয়ভাবে একাধিকবার মীমাংসা করে দেওয়া হয়েছে এবং তরুণীর মা-বাবা নাইক্ষ্যংছড়িতে মেয়েকে বিয়েও দিয়েছিলেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বলেন, তরুণীকে বিয়ের কথা বলে পাঁচ বছর ধরে বিভিন্ন সময় র্ধষণ করে আসছিল মাহবুবুর রহমান। গত ১১ মে ২০২১ তারিখে তরুণীকে গর্ভপাত করার জন্য চাপ দিতে থাকেন তিনি। তরুণী রাজি না হওয়ায় তাঁকে মারধর করেন এবং জোর করে ওষুধ খাইয়ে খামার থেকে দ্রুত পালিয়ে চলে যান মাহবুবুর। এতে ওই তরুণী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে উপজলো স্বাস্থ্যকেন্দ্রে র্ভতি করা হয়।

এ ঘটনায় অভযিুক্ত মাহবুবুর রহমানকে আসামি করে গতকাল বুধবার লামা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তরুণীর পরিবারের পক্ষ থেকে একটি ধর্ষণের মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

লামা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, চিকিৎসকদের দেওয়া প্রতিবেদন অনুযায়ী, ওই তরুণী দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা। বিয়ের কথা বলে মাহবুবুর রহমানের ধর্ষণের কারণে ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন। অভিযুক্ত মাহবুবুরকে গ্রেপ্তারের অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানান তিনি।