বাঘাইছড়িতে বিজিবি কর্তৃক অন্যায়ভাবে জুম্মদের সেগুন কাঠ জব্দ এবং হয়রানি করার অভিযোগ

0
267

হিল ভয়েস, ৮ মে ২০২৩, রাঙামাটি: রাঙামাটি জেলাধীন বাঘাইছড়ি উপজেলার সারোয়াতলী ইউনিয়নের চুড়াখালীতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) কর্তৃক অন্যায়ভাবে স্থানীয় জুম্ম ব্যবসায়ীদের সেগুন কাঠ ও দেশিয় গরু জব্দ এবং জরুরি চিকিৎসার কাজে যাওয়া এক ডাক্তারকে হয়রানি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে পরে গরুগুলো ফেরত দেওয়া হলেও কাঠগুলো ফেরত দেওয়া হয়নি বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগীরা বিজিবির এই সমস্ত কাজকে অন্যায়, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও হয়রানিমূলক বলে উল্লেখ করে গভীর হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল ৭ মে ২০২৩ রাত আনুমানিক ৭ টার দিকে ৩৭ বিজিবি রাজনগর জোনের সহকারী জোন কম্যান্ডার মেজর মোহাম্মদ হাফিজ হোসেন এর নেতৃত্বে রাজনগর জোন ও চুড়াখালী বিজিবি ক্যাম্প হতে ৫০-৬০ জনের বিজিবির একটি দল জুম্ম অধ্যুষিত চুড়াখালী গ্রামে টহল অভিযানে যায়। এসময় বিজিবি কম্যান্ডার মেজর মোহাম্মদ হাফিজ হোসেন ৩৭নং আমতলী ইউনিয়নের শ্রমিক লীগের সভাপতি বেলাল হোসেনকেও সাথে নিয়ে যায়। স্থানীয়দের অভিযোগ, মেজর মোহাম্মদ হাফিজ হোসেন ও শ্রমিক লীগের সভাপতি বেলাল হোসেনের যোগসাজসে এই টহল অভিযান চালানো হয়।

বিজিবির উক্ত টহল দলটি চুড়াখালী গ্রামে গিয়ে স্থানীয় জুম্ম কাঠ ব্যবসায়ী দীপায়ন চাকমার বৈধ মালিকানাধীন প্রায় ৩০০ ফুট সেগুন কাঠ অন্যায়ভাবে জব্দ করে। দীপায়ন চাকমা সম্প্রতি উক্ত সেগুন গাছ ক্রয় করেন নবপেড়াছড়া গ্রামের অধিবাসী শান্তশীল চাকমার নিজস্ব সেগুন বাগান থেকে। এছাড়াও বিজিবি সদস্যরা এসময় জুম্মদের তিনটি দেশিয় গরু জব্দ করেন। পাবলাখালী গ্রামের বাসিন্দা নিরঞ্জন চাকমা ও তার দুই বন্ধু ব্যবসার উদ্দেশ্যে ঐ তিনটি গরু কিনেছিলেন পার্শ্ববর্তী বরকলের হরিণা থেকে।

জানা গেছে, বিজিবি সদস্যরা ‘অবৈধভাবে পাচার করা হচ্ছে’ এমন অভিযোগ তুলে জুম্মদের উক্ত কাঠ ও গরুগুলো জব্দ করেন।

বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর, জব্দকৃত কাঠ ও গরুর মালিকরা খেদারমারা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার শুভদেব চাকমাকে নিয়ে চুড়াখালী বিজিবি ক্যাম্পে গিয়ে বিজিবি কম্যান্ডারের সাথে দেখা করেন এবং উক্ত কাঠ ও গরুগুলো বৈধভাবে কেনা বলে উল্লেখ করেন। এসময় বিজিবি কর্তৃপক্ষ গরুগুলো মালিকদের ফেরত দিলেও সেগুন কাঠগুলো ফেরত দেয়নি বলে জানা গেছে।

অপরদিকে, আজকেও (৮ মে ২০২৩) বিকাল আনুমানিক ৪ টার দিকে উক্ত ক্যাম্পের একদল বিজিবি সদস্য সারোয়াতলী এলাকায় গিয়ে টিকেল চাকমা নামের স্থানীয় এক জুম্মর কাছ থেকে ২০০-৩০০ ফুট সেগুন কাঠ জোরপূর্বক অন্যায়ভাবে নিয়ে গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

ডাক্তারকে হয়রানি:

এছাড়া, আজ (৮ মে ২০২৩) সকালের দিকে চুড়াখালী বিজিবি ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা গর্ভবর্তী নারীর জরুরি চিকিৎসার প্রয়োজনে আসার সময় এক জুম্ম ডাক্তারকে আটক করে তল্লাসি চালিয়ে হয়রানি করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, সারোয়াতলী ইউনিয়নের চিবিতবাগান এলাকায় এক গর্ভবতী জুম্ম নারী হঠাৎ গুরুতর অসুস্থতা বোধ করলে বাড়ির লোকেরা একজন ডাক্তার আনতে যান। ওই ডাক্তারকে আনার সময় মাঝপথে রাঙাপাহাড় নামক স্থানে তল্লাসি চৌকিতে বিজিবি সদস্যরা ডাক্তারকে দীর্ঘক্ষণ আটক করে রাখে এবং তল্লাসি চালায়। ডাক্তারের নাম সুগতি চাকমা বলে জানা গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধি বিজিবির এহেন আচরণকে ‘বিবেচনাহীন’ ও ‘অমানবিক’ আখ্যায়িত করে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন