বরকল সীমান্তবর্তী এলাকায় জনগণের উপর বিজিবি’র হয়রানি

0
653
ছবি : প্রতিকী

হিল ভয়েস, ২৫ ডিসেম্বর ২০২১, রাঙ্গামাটি: রাঙ্গামাটি জেলার বরকল উপজেলার বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তবর্তী (হরিণা নদীর এলাকা) এলাকাসমূহে বিজিবি কর্তৃক ব্যবসায়ী এবং সাধারণ জনগণকে হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। জনসংখ্যার অনুপাতে প্রয়োজনের অধিক কোন কিছু ক্রয় করলেই সেটা শান্তিবাহিনীর জন্য নিয়ে যাচ্ছে- এইরকম উদ্ভট অজুহাত দেখিয়ে গত ২-৩ বছর ধরে বিজিবি এই কাজ চলমান রেখেছে।

উল্লেখ্য যে, কোন ব্যবসায়ী কি পরিমাণ মালামাল রাঙ্গামাটি থেকে নিয়ে আসবেন এবং কি পরিমাণ মালামাল বিক্রয়ের জন্য বাজারে নিয়ে যাবেন, এই সমস্ত তথ্য বিবরণ সহকারে বিজিবির নিকট পূর্ব হতেই দরখাস্ত দিয়ে অনুমতি নিতে হয়।

এছাড়াও সাধারণ গ্রামবাসীরা যেসমস্ত পণ্য কিংবা জিনিস নিজস্বভাবে উৎপাদন করে থাকে, সেই সমস্ত জিনিস (কলা, আনারস, আদা, হলুদ, পেঁপে, তিল প্রভৃতি) বাজারে বিক্রয় করার ক্ষেত্রেও বিজিবির কাছ থেকে পূর্বানুমতি নিতে হয়।

এমনকি বাড়ি, দোকান ইত্যাদি আবাসন নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী (ঢেউটিন, রড, ইট, সিমেন্ট ইত্যাদি) ক্রয় করতে গেলেও বিস্তারিত কারণ দর্শিয়ে বিজিবির নিকট আবেদন করতে হয়।

আরো উল্লেখ্য যে, দরখাস্ত দিয়ে অনুমতি নেয়া সত্ত্বেও বড় হরিণামুখ বিজিবি ক্যাম্পের ঘাটে ব্যবসায়ী এবং সাধারণ জনগণকে ঘন্টা/দেড় ঘন্টা বোটে বসিয়ে রাখা হয়। পরবর্তীতে তাদের ইচ্ছানুসারে ঘাটে এসে দরখাস্ত অনুসারে চেক করে ছবি তোলা হয়। কোন কোন সময় তেল, মসলা ইত্যাদি দ্রব্যাদিও টাকা না দিয়ে বিজিবিরা নামিয়ে রাখে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।