থানচিতে বিজিবি কর্তৃক ৩ জুম্মকে আটক ও মারধর, পরে মুক্তি

0
1168
ছবি: প্রতীকী

হিল ভয়েস, ২৩ জুন ২০২১, বান্দরবান: বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের কর্তৃক বান্দরবান পার্বত্য জেলাধীন থানচি উপজেলার বলি বাজার ইউনিয়নের বলি বাজার এলাকা থেকে তিন নিরীহ জুম্মকে ধরে নিয়ে ক্যাম্পে আটক রেখে মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

প্রায় দেড় ঘন্টা আটক রাখা ও মারধর করার পরে বিজিবি ক্যাম্প থেকে ওই তিন জুম্ম গ্রামবাসীকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। একটি স্থানীয় সামাজিক সমস্যায় জড়িত হয়ে বিজিবি সদস্যরা একতরফাভাবে উক্ত জুম্মদের ক্যাম্পে ধরে নিয়ে আটক ও মারধর করে বলে এলাকাবাসীরা অভিযোগ করেছে।

আটক ও মারধরের শিকার ৩ জুম্ম হলেন- (১) অংক্যনু মারমা (৩৫), উসাইশৈ মরমা (২৮) ও শৈমংসিং মারমা (২৩)। তারা বলি বাজার এলাকার বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল ২২ জুন ২০২১ সকাল ১০.০০ টার দিকে বলিবাজার এলাকায় এক বাঙালি যুবক বাঙ্গাল হালিয়া কলেজে পড়ুয়া এক পাহাড়ি মারমা মেয়ের সাথে দেখা করতে আসে। এক পর্যায়ে তারা মেইনরোডে গেলে এলাকাবাসীর চোখে পড়ে এবং তৎমুহূর্তে এলাকাবাসীরা অপ্রীতিকর ও অসামাজিক কোনো ঘটনার আশঙ্কায় তাদের দুইজনকে বলিবাজার ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে যায়। এসময় উভয়পক্ষের অবিভাবকদের ডেকে বিষয়টি সমাধানের প্রচেষ্টা করা হয়।

আলোচনার এক পর্যায়ে কথা কাটাকাটি হলে কয়েকজন জুম্ম যুবক উত্তেজিত হয়ে বাঙালি ছেলেটিকে মারধর করতে শুরু করে। এতে কয়েকজন মুরুব্বি সমাধানের চেষ্টা করে। এমন সময় ঐখানে উপস্থিত বলিবাজার বিজিবি ক্যাম্পের এক আরপি হাবিলদার উত্তেজিত হয়ে জড়িয়ে পড়ে জুম্মদের মারধর করতে থাকে। এসময় উত্তেজিত জনতা সকলেই ঐ হাবিলদারের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে হাবিলদারকে কিলঘুষি প্রদান করে।

তবে কিছু মুরুব্বির প্রচেষ্টায় পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হয় এবং সকলেই যে যার মত বাড়িতে চলে যায়।

এরপর সন্ধ্যা ৬:০০ টার দিকে একদল বিজিবি সদস্য বলি বাজারে আসে। এসময় তারা বলি বাজার ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে থাকা উক্ত তিন নিরীহ জুম্ম গ্রামবাসীকে ক্যাম্পে ধরে নিয়ে যায় এবং প্রায় দেড় ঘন্টা আটক রেখে বিজিবি সদস্যরা তিন জুম্মকে ব্যাপক মারধর করে।

পরে রাত ৭:৩০ টার দিকে বিজিবি ক্যাম্প থেকে আটককৃতদের ছেড়ে দেওয়া হয় বলে খবর পাওয়া গেছে।