জুরাছড়িতে সেনাবাহিনীর মারধরের শিকার ৩ নিরীহ জুম্ম যুবক

0
212
ছবি: প্রতিকী

হিল ভয়েস, ২ জুলাই ২০২৩, রাঙ্গামাটি: রাঙ্গামাটি জেলাধীন জুরাছড়ি উপজেলার জুরাছড়ি সদর এলাকায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক তিন নিরীহ জুম্ম যুবক বেদম মারধর ও হয়রানির শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ভুক্তভোগী তিন যুবকের পরিচয়- সুজন খীসা (২৫), সত্তম চাকমা (২১) ও বিকাশ চাকমা (১৮)। তাদের সকলের বাড়ি জুরাছড়ি সদরের রাস্তামাথা এলাকায় বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল (১ জুলাই ২০২৩) রাত আনুমানিক ১০ টার দিকে বাড়িতে বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার পর ভুক্তভোগী সুজন খীসা, সত্তম চাকমা ও বিকাশ চাকমা তাদের এলাকার আরও দুই কিশোর সত্য বিকাশ চাকমা (১৫) ও সত্য আলো চাকমাসহ পাঁচ জনে একসঙ্গে বাড়ির পার্শ্ববর্তী হাঙারাছড়ি সেতুতে হাওয়া খেতে যায়।

এরপর রাত ঠিক ১১ টার দিকে বনযোগীছড়া সেনা জোনের জোন কমান্ডার মোঃ জুলকিফলী আরমান বিখ্যাত (পিএসসি) এর নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর একটি দল সেখানে উপস্থিত হয়। এসময় জোন কমান্ডার মোঃ জুলকিফলী আরমান বিখ্যাত (পিএসসি) হাঙারাছড়ি সেতুতে থাকা জুম্ম যুবক ও কিশোরদেরকে ‘বাড়ি কোথায়, এত রাতে এখানে কী করছ, কী করেন’ ইত্যাদি নানা প্রশ্ন জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এক পর্যায়ে জোন কমান্ডার সুজন খীসা, সত্তম চাকমা ও বিকাশ চাকমাকে গালে থাপ্পর মারেন এবং গাছের গুঁড়ি দিয়ে অমানবিকভাবে মারধর করেন। মারধর করার পর জোন কমান্ডার আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে আকাশের দিকে তিনবার গুলি ছুঁড়ে সেনাদলটি নিয়ে জুরাছড়ি সদরের দিকে রওনা দেন।

আরও জানা গেছে, উক্ত ঘটনার পূর্বে রাত ১০ টার দিকে উক্ত সেনা সদস্যরা জুরাছড়ি সদর এলাকায় নন্টু দেওয়ান (৬০) ও পুরন্দ্র চাকমা (৩৫) নামে দুই নিরীহ গ্রামবাসীকেও হয়রানিমূলকভাবে নানা অপ্রাসঙ্গিক প্রশ্ন করে এবং ভয়ভীতি দেখায়। পুরন্দ চাকমা পেশায় একজন মোটরসাইকেল চালক বলে জানা গেছে।