চুক্তি বাস্তবায়িত হতে হবে, তা না হলে পাহাড়ে শান্তি আসবে না- বাঘাইছড়িতে পিসিপির অনুষ্ঠানে ঊষাতন তালুকদার

0
319

হিল ভয়েস, ১৫ মার্চ ২০২৩, রাঙামাটি: রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ির শিজক কলেজে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের (পিসিপি) উদ্যোগে আয়োজিত নবীন বরণ ও কৃতি শিক্ষার্থী সবংর্ধনা অনুষ্ঠানে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সহ-সভাপতি ও সাবেক সাংসদ ঊষাতন তালুকদার বলেছেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়িত হতে হবে, তা না হলে পাহাড়ে শান্তি আসবে না, পাহাড় আবার অশান্ত হবে।

আজ ১৫ মার্চ ২০২৩ ‘নবীনের চেতনা হোক অধিকারের প্রত্যয়ে আন্দোলনের অঙ্গীকার’ শ্লোগানে পিসিপির বাঘাইছড়ি থানা শাখার উদ্যোগে শিজক কলেজ মাঠে কলেজে প্রথম বর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ ও বাঘাইছড়ি উপজেলার বিভিন্ন স্কুল থেকে ২০২২ সালে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দেয়া হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সহ-সভাপতি ও সাবেক সাংসদ ঊষাতন তালুকদার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পিসিপির কেন্দ্রীয় সভাপতি সুমন মারমা, শিজক কলেজের অধ্যক্ষ সুভাষ দত্ত চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ম্রানুচিং মারমা, পিসিপির রাঙামাটি জেলা শাখার সভাপতি জিকো চাকমা ও পার্বত্য চট্টগ্রাম মহিলা সমিতির বাঘাইছড়ি থানা কমিটির সভাপতি লক্ষীমালা চাকমা। এতে সভাপতিত্ব করেন পিসিপির বাঘাইছড়ি থানা শাখার সভাপতি পিয়েল চাকমা এবং সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক চীবরণ চাকমা।

প্রধান অতিথি শ্রী ঊষাতন তালুকদার শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, একজন মানুষের শিক্ষা গ্রহণ করার অর্থ তার নিজের বিবেককে জাগ্রত করা, ন্যায়-অন্যায়কে বুঝার সক্ষমতা লাভ করা। তার যদি ন্যায়বোধ জাগ্রত হয় তাহলে সে একজন বিবেকবান মানুষ, সে কোনোদিন অন্যায় সহ্য করতে পারবে না, চেয়ে থাকতে পারবে না, সে অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার হবে। সেজন্য ছাত্রদেরকে এক একজন বিবেকবান মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হবে। শিক্ষা গ্রহণ করে আন্দোলনে সামিল হতে হবে, আন্দোলন করতে হবে। জাতি সমাজের তরে জীবন বিলিয়ে দিতে হবে। তা না হলে আমরা হারিয়ে যাব।

তিনি আরও বলেন, পাহাড়ের মানুষ শান্তি চায়। শান্তিপূর্ণ সমাধানের জন্য পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল। চুক্তি স্বাক্ষরের ২৫ বছর পার হয়ে গেলেও চুক্তি যথাযথ ও পূর্ণাঙ্গভাবে বাস্তবায়ন না হওয়াতে পাহাড়ের মানুষ নিরাপত্তাহীনতায় বসবাস করছে। আজ যদি চুক্তি বাস্তবায়িত হত তাহলে রোয়াংছড়ির মারমা ছেলেটার ব্যাগ আনতে গিয়ে মার খেতে হতো না। চুক্তি বাস্তবায়ন হলে সত্যিকারে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হতো। তারই মধ্য দিয়ে পাহাড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হত।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পিসিপির কেন্দ্রীয় সভাপতি সুমন মারমা বলেন, শিক্ষার্থীদের শুধুমাত্র টাকা উপার্জনের মেশিন হয়ে গড়ে না ওঠে প্রকৃত শিক্ষাটা গ্রহণ করতে হবে। একজন শিক্ষার্থীকে সেই শিক্ষাটা গ্রহণ করতে হবে যে শিক্ষাটা তাকে কোনটা সত্য এবং কোনটা মিথ্যা, কোনটা ন্যায় এবং কোনটা ন্যায় নয়, সেটা মূল্যায়ন করতে শিক্ষা দেয়।

পরে বাঘাইছড়ি উপজেলাধীন ২০২২ সালে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট প্রদানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।