গোদাগাড়ীতে আদিবাসী নারী ধর্ষণের চেষ্টা, প্রতিবাদ করায় দুইজনকে পিটিয়ে জখম

0
694

হিল ভয়েস, ১১ আগস্ট ২০২০, রাজশাহী:  রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার গোগ্রাম ইউনিয়নের ইটাহারি গ্রামে আদিবাসী নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের চেষ্টায় বাধা দেয়ায় দুর্বৃত্তরা একজন আদিবাসী নারীসহ দুইজনকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে যে, গত ৮ আগস্ট ২০২০ দিবাগত রাতে আনুমানিক ১০.৩০টায় একই গ্রামের জহিরুল ইসলাম (৪৫) আদিবাসী নারীর ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় আদিবাসী নারীটি চিৎকার করলে গ্রামের লোকজন জহিরুল ইসলামকে ধরে ফেলে এবং আটকে রাখে।

পরে জহিরুল ইসলামের লোকজন তাকে আদিবাসীদের কাছ থেকে জোরপূর্বক ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। উল্লেখ্য, জহিরুল ইসলাম ঐ আদিবাসী নারীকে কিছুদিন যাবত শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করতো।

এই ঘটনায় ৯ আগষ্ট ২০২০ গোদাগাড়ী থানায় ঐ আদিবাসী নারী একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এদিন এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জহিরের ছেলে জাব্বারের নেতৃত্বে ১০-১২ জন সন্ত্রাসী দল ঐ আদিবাসী নারীর দেবর মতিলাল মুরারী (২২) এবং তার স্ত্রী রীতা রানী মুরারীকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে যখম করে।

আহত মতিলাল মুরারী ও রীতা রানী মুরারী বর্তমানে প্রেমতলি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসাধীন আছে। এখনো পর্যন্ত পুলিশ এ ঘটনার কোন আসামীকে গ্রেপ্তার করেনি।