কাপ্তাইয়ে চলন্ত গাড়িতে আদিবাসী মারমা কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টায় আটক ২ আসামি

0
772

হিল ভয়েস, ২১ অক্টোবর ২০২০, রাঙ্গামাটি: রাঙ্গামাটির রাজস্থলী থেকে আসা কাপ্তাইগামী চলন্ত গাড়িতে একা পেয়ে আদিবাসী মারমা কলেজছাত্রীকে (১৯) ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে দুই যুবককে আটক করেছে চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ। আটককৃতরা হল- মো. শাহিন (২২) ও শওকত হোসেন (২৮)। তারা দুজনেই সিএনজি চালক। গতকাল মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর ২০২০) রাত পৌনে ১০টায় কাপ্তাই উপজেলার রাইখালী এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল দুপুর ১২:৩০ ঘটিকায় বাঙ্গালহালিয়া সিএনজি ষ্ট্যান্ড থেকে সিএনজি যোগে কাপ্তাই উপজেলার রাইখালীতে যাওয়ার সময় রাইখালী সড়কের সিও সাইড রাস্তার উপর সিএনজিটি আসলে আসামীদ্বয় ওই ছাত্রীকে জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। বিপদ আঁচ করতে পেরে ভুক্তভোগী ছাত্রী চলন্ত গাড়ি থেকে লাফিয়ে পড়ে। এতে তার বাম চোখের পাশে কানের আগে ও বাম পিঠের উপরদিকে এবং দু হাটুর ছিলা জখম প্রাপ্ত হয় এবং সম্ভ্রম রক্ষার্থে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বাসে উঠে পড়ে।
পরে ওই দুই চালক দ্রুত ঘটনাস্থল ছেড়ে পালায়।

ঘটনায় ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী বাঙ্গালহালিয়ার স্থানীয় লোকজন ও সেনা ক্যাম্পে অভিযোগ করে। পরে চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ রাইখালী-বাঙ্গালহালিয়া সিএনজি মালিক সমিতি, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে আসামীদের আটক করে।

আটক সিএনজি চালক মো. শাহিনের বাড়ি রাঙ্গুনিয়া কোদালা এলাকায় এবং পিতার নাম মৃত আবু বক্কর সিদ্দিক। অপর সিএনজি চালক শওকত হোসেন রাঙ্গুনিয়ার সন্ধীপ পাড়ার মো: আকবর হোসেনের ছেলে।

ওসি ইকবাল বাহার বলেন, ভুক্তভোগী নিজেই বাদী হয়ে মো: শাহিন ও শওকত হোসেনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ (৪)(খ)/৩০ ধারায় মামলা করেছেন। আজ বুধবার সকালে তাদের রাঙামাটি আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।