কল্পনা চাকমা অপহরণ মামলা খারিজের আদেশে পিসিপি ও এইচডাব্লিউএফ’র নিন্দা ও প্রতিবাদ

0
119

হিল ভয়েস, ২৭ এপ্রিল ২০২৪, রাঙ্গামাটি: আজ (২৭ এপ্রিল) পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডাব্লিউএফ) এক যৌথ বিবৃতির মাধ্যমে আদালত কর্তৃক কল্পনা চাকমা অপহরণ মামলা খারিজের আদেশে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে। পাশাপাশি কল্পনা চাকমা অপহরণের মামলাসহ পার্বত্য চট্টগ্রামে সংঘটিত সকল মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনার সুষ্ঠু বিচার এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির যথাযথ ও পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নের জোর দাবিও জানিয়েছে সংগঠন দুটি।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘গত ২৩ এপ্রিল ২০২৪ রাঙ্গামাটির সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ফাতেমা বেগম মুক্তা কর্তৃক পাহাড়ের নারী নেত্রী কল্পনা চাকমা অপহরণ মামলাটি খারিজের আদেশ দেয়া হয়। কল্পনা চাকমার অপহরণে চিহ্নিত অপরাধীদের দায়মুক্তি দিতে আদালতের এই আদেশ পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে।

পিসিপি ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন মনে করে দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে মামলা চলার পরও অপহৃত কল্পনা চাকমার হদিশ দিতে না পারা ও অভিযুক্ত সেনাবাহিনীর লে: ফেরদৌস এবং ভিডিপি সদস্য নূরুল হক ও সালেহ আহমেদকে গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনতে না পারা প্রশাসন ও বিচার বিভাগ চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। প্রকৃত অপরাধীদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার উদ্যোগ গ্রহণ না করে উল্টো অপরাধীদের দায়মুক্তি দিতে প্রশাসনের অপতৎপরতা পরিলক্ষিত হয়েছে। মামলাটি খারিজের মধ্যে দিয়ে প্রশাসন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিদ্যমান বিচারহীনতার এক চরম দৃষ্টান্ত প্রদর্শন এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনকারীদের উৎসাহিত করেছে।

পিসিপি ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন আরও মনে করে, প্রশাসন ও বিচার বিভাগের এ ধরণের পক্ষপাতমূলক আচরণ পার্বত্য চট্টগামের সামগ্রিক মানবাধিকার পরিস্থিতিকে সংকটাপন্ন করে তুলবে। তাই প্রশাসন ও বিচার বিভাগের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করে কল্পনা চাকমা অপহরণের মামলাসহ পার্বত্য চট্টগ্রামে সংঘটিত সকল মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনার সুষ্ঠু বিচার এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির যথাযথ ও পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নের জোর দাবি জানাচ্ছি।’