ঋণের টাকা ছিনতাই নিয়ে পানছড়িতে বিজিবি-এলাকাবাসীর সংঘর্ষ, ১ জন গুলিবিদ্ধ

0
250

হিল ভয়েস, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩, খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলার পুজগাঙ এলাকায় এক পাহাড়ি কর্তৃক ঋণের টাকা পরিশোধ করতে যাওয়ার সময় বিজিবি কর্তৃক টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় বিজিবি ও এলাকাবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ দেখা দেয়। এক পর্যায়ে এক বিজিবি সদস্য কর্তৃক জনতার উপর গুলি করলে একজন আহত হন। এছাড়া বিজিবি কর্তৃক আরেকজনকে আটক করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে যে, গতকাল রবিবার (২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩) বিকাল ৪ ঘটিকার সময় বিজিবি কর্তৃক এক ব্যবসায়ীর ঋণ পরিশোধের জন্য পাঠানো ১২ লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে এক ব্যক্তিকে আটকের চেষ্টা করলে এ ঘটনা সংঘটিত হয়।

জানা যায়, পানছড়ির ধুধুকছড়া এলাকার সীমানা পাড়া বাসিন্দা ইলা চাকমা, পিতা অনিল চন্দ্র চাকমা নামে এক ব্যবসায়ী কয়েক মাস আগে ব্যবসার জন্য ১২ লক্ষ টাকা ঋণ নেন। তিনি ওই ঋণের ১২ লক্ষ টাকা পরিশোধের জন্য তার ভাইয়ের ছেলে রিন্টু চাকমার মাধ্যমে পানছড়ি বাজারে পাঠাচ্ছিলেন।

রিন্টু চাকমা টাকাগুলো নিয়ে ধূধুকছড়া থেকে পানছড়ি বাজারে যাওয়ার সময় লোগাং বিজিবি জোনের চেকপোস্টে রিন্টু চাকমাকে আটকানো হয় এবং তাকে তল্লাশি করে একটি ব্যাগে ওই ১২ লক্ষ টাকা খুঁজে পায় এবং টাকাগুলো কেড়ে নেয়।

এসময় বিজিবি সদস্যরা রিন্টু চাকমার কাছ থেকে এই টাকাগুলো কার জানতে চান। এতে রিন্টু চাকমা টাকাগুলো ব্যবসায়ের জন্য নেয়া ঋণ পরিশোধের টাকা বলে উত্তর দিলে বিজিবি সদস্যরা তা মেনে না নিয়ে টাকাসহ তাকে আটক করে পানছড়ি থানায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

এ সময় ভুক্তভোগী রিন্টু চাকমার পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান চন্দ্রদেব চাকমা, লোগাং ইউপি চেয়ারম্যান জয় কুমার চাকমা ও চেঙ্গী ইউপি চেয়ারম্যান আনন্দ জয় চাকমাকে জানানো হলে তারা বিজিবির সাথে ফয়সালা করার চেষ্টা করেন। কিন্তু বিজিবি সদস্যরা তাতে রাজী না হয়ে রিন্টু চাকমাকে আটক করে গাড়িতে তুলে পানছড়ি থানায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

পরে খবর পেয়ে এলাকাবাসী পুজগাং ব্রিজে বিজিবি সদস্যদের বহনকারী গাড়িটি আটকিয়ে দেন। এসময় বিজিবি সদস্যদের সাথে এলাকাবাসীর কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে হট্টগোল শুরু হলে উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষ চলার এক পর্যায়ে এলাকাবাসী বিজিবির কাছ থেকে ওই ১২ লাখ টাকা ও রিন্টু চাকমাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় বলে জানা যায়।

এসময় বিজিবি সদস্যরা উত্তেজিত হয়ে গুলি চালালে মিকেল চাকমা (২৪) নামে একজন আদিবাসী যুবক পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়। মিকেল চাকমা পানছড়ির লোগাঙ ইউনিয়নের বাবুরো পাড়ার লক্ষ্মী চাকমার ছেলে বলে জানা যায়।

এছাড়া পানছড়ির পুজগাঙ ইউনিয়নের দুর্গামনি পাড়ার অমিয় চাকমা ছেলে পুর্ণ রতন চাকমা (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে বিজিবি।

বর্তমানে পুজগাং এলাকায় যৌথ বাহিনী অবস্থান করছে বলে এলাকাবাসীর সূত্রে জানা গেছে। এতে জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।