আদিবাসী নারীদের ওপর সহিংসতায় চার নারী মানবাধিকার সংগঠনের বিবৃতি

0
1024

হিল ভয়েস, ৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ঢাকা: আদিবাসী নারীর উপর ক্রমাগত সহিংসতার তীব্র নিন্দা, অবিলম্বে মামলা গ্রহণ ও দোষীদের গ্রেপ্তার করে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার দাবিতে চারটি নারী মানবাধিকার সংগঠন উদ্বেগ জানিয়েছে।

গতকাল ৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ সোমবার বিকালে চার সংগঠনের পক্ষে বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্কে সদস্য সচিব চঞ্চনা চাকমা স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে উদ্বেগ জানিয়ে বলা হয়, গত কয়েকদিন ধরে দেশের  বিভিন্ন জেলা থেকে আদিবাসী নারীর উপর ক্রমাগত নিপীড়ন, নির্যাতন ও সহিংসতার সংবাদ পাওয়া যাচ্ছে।

গত ৩০শে আগষ্ট ২০২০ দিবাগত রাত ১:০০ টায় বান্দরবানের লামায় এক আদিবাসী নারী দলগত ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হলে আসামী একজনকে গ্রেপ্তার করা হলেও অন্য আসামীদের এখনো গ্রেপ্তার করা হয়নি।

অন্যদিকে ৩১শে আগষ্ট ২০২০ দিনাজপুরে এক বাক-প্রতিবন্ধী এক আদিবাসী নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। একই তারিখে খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ধর্ষণের পর স্থানীয়ভাবে বৈঠক করে সমঝোতার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রতন শীলের বিরুদ্ধে। সালিশে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত আল আমিনকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ ঘটনায় কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এই কোভিড মহামারির সময়ে আদিবাসী নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতার মাত্রা চরম আকারে ধারণ করেছে। এমতাবস্থায় উল্লেখিত ঘটনাসমূহের যে সকল ক্ষেত্রে মামলা গ্রহণ করা হয়নি সে সকল ক্ষেত্রে অবিলম্বে মামলা গ্রহণ ও দোষীদের গ্রেপ্তার করে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার দাবি জানাচ্ছে এই সংগঠনসমূহ।

বিবৃতি দানকারী চার সংগঠন হল আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক, আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক), বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ ও বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।